Breaking

Wednesday, May 19, 2021

শেওড়াফুলির চিন্ময় বাবু চিত্রকলার মাধ্যমে মানুষজনকে সতর্ক করছেন।

 শেওড়াফুলির চিন্ময় বাবু চিত্রকলার মাধ্যমে মানুষজনকে সতর্ক করছেন।


নিজস্ব প্রতিনিধি: এই করোনা পরিস্থিতিতে মানুষ যতটা পারছেন নিজেকে  সামলে রাখছেন। এবং অনেকে আছে যারা অকারনে বাড়ির বাইরে বেরোচ্ছে।

শেওড়াফুলির চিন্ময় বাবু চিত্রকলার মাধ্যমে মানুষজনকে সতর্ক করছেন।

শেওড়াফুলির চিন্ময় বাবু চিত্রকলার মাধ্যমে মানুষজনকে সতর্ক করছেন।




এই করোনা পরিস্থিতিতে পুরো ভারতবর্ষের লকডাউন হয়ে গেছে।বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গে লকডাউন হয়েছে যেখানে কিছু নিয়ম এবং শর্ত মেনেই লোকেরা বাইরে বের হচ্ছেন।


অনেক মানুষের কাজ চলে গেছে এই লকডাউনে। এবং অনেক মানুষ কাজহীন হয়ে বসে আছে বাড়িতে। তাদের দুবেলা দুটো ভাত খাওয়ার মত কোন উপায় নেই।


অনেকেই আছেন যারা এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে আছেন এবং তাদের দুবেলা দুটো ভাত খাওয়াচ্ছে।

এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতিতে এমনই এক মন জয় করা ঘটনা ঘটেছে যেটি আপনি নিজের চোখে দেখলে বিশ্বাস করতে পারবেন না।


এই ঘটনাটি শেওড়াফুলি বাজারের সামনে ঘটেছে।


যেখানে এক মধ্যবিত্ত ভদ্রলোক তার নিজের চিত্রকলা দিয়ে মানুষের মন জয় করে ফেলেছেন।

আপনারা ভাবছেন হয়তো নিজের বাড়িতে  চিত্রকলা করেছে  কিন্তুএমনটা নয় ।


উনি না নিজের বাড়ির জন্য এঁকেছেন না উনি এটি বিক্রি করে নিজের সংসার চালাচ্ছে।


কাল রাত্রের দিকে শেওড়াফুলির এক বাসিন্দা ওনার নাম চিন্ময় বাবু । শেওড়াফুলির অনেক মানুষই তাকে চেনেন চিন্ময়  নামে। অনেকের মুখ থেকে জানা  গেছে যে তিনি একটি ভালো মনের মানুষ কিন্তু তিনি খুব অসহায় এই লকডাউন এর কারণে তিনি কর্মহীন হয়ে পড়েছেন।


 শেওড়াফুলি বাজারের কাছে  এক ভদ্রলোক আপন মনে ছবি এঁকে যাচ্ছেন। তারপর আমরা বুঝলাম এটা ছবি নয়, তিনি আমাদের সকলের জন্য একটি সতর্কবার্তা দিয়েছেন একটি চিত্র কলার মাধ্যমে।


 ইনি হলেন চিন্ময় বাবু, পেশায় রং মিস্ত্রি। পরিস্থিতির চাপে তাকে এই কাজ করতে হচ্ছে। কোনো সহৃদয় ব্যাক্তি যদি এনাকে কাজ দেন তাহলে এনার পরিবার ভালো থাকবে। 


কর্মহীন হয়ে সাহায্যের হাত পেতেছেন চিন্ময় বাবু


যখন আমরা ওনার সাথে কথা বলি তখন উনি বলেন যে এই লকডাউনে কোন কাজ নেই সংসার চালাতে খুব অসুবিধা হচ্ছে। এই লকডাউন এর জন্য রংয়ের কাজ পাচ্ছি না। যদি এই লকডাউনে কাজ পেতাম তাহলে আমাদের সংসারটা একটু হলেও সামাল দিতে পারতাম। 

কিন্তু কি করবো এই লকডাউনে তো বেরোতেই পারছিনা আর কোন কাজ নেই। কেউ কাজের জন্য বলছে না।


বাড়ি থেকে বেরোলে পুলিশ তাড়া করছে। এখন আমি কি করবো বলুন কাজ ছাড়া যে আমার সংসার এক পাও এগোতে পারছে না।

 আপনাদের মধ্যে যদি কেউ এই ভদ্র লোককে সাহায্য করতে চান তাহলে আমরা নিচে ওনার ফোন নম্বর দিয়ে দেবো যেখানে আপনি সরাসরি চিনময় বাবু কে ফোন করে কাজের ব্যাপারে বলতে পারেন এবং তাকে সামান্য হলেও একটি কাজ দিতে পারেন। 


বাড়িয়ে দিন সাহায্যের হাত চিন্ময়  বাবুর জন্য


যাদের আর্থিক দিক টা একটু হলেও ভালো আছে তারা দয়া করে এই লকডাউন এর সময় চিন্ময়  বাবুকে কিছু সাহায্য করুন অর্থ দিয়ে না হলে কাজ দিয়ে কিন্তু সাহায্যের হাত জরুর বারান।


সাবধান টাকাটা শুধুমাত্র চিন্ময়  বাবুর হাতেই দেবেন


দয়া করে যদি আপনারা অর্থ দিক থেকে সাহায্য করেন তাহলে উনার হাতেই সেই টাকাটি দেবেন কোনরকম ব্যাংক একাউন্টে বা কোনরকম ইন্টারনেট ব্যাংকিং এ টাকা দেবেন না।


কারণ এখন কিছু মানুষ আছে যারা নিজের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট এর তথ্য দিয়ে সাহায্য প্রার্থীর নামে টাকাটি নিজের ব্যাংকে টান্সফার করে নিচ্ছে যার ফলে সাহায্যকারী প্রার্থীর একাউন্টে টাকা ঢুকছেনা এবং তারা অসহায় হয়ে পড়ছে এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতিতে।


আপনারা যদি আর্থিক দিক দিয়ে সাহায্য না করতে পারেন তাহলে  এই খবরটি আপনাদের গ্রুপে এবং আপনাদের বন্ধু-বান্ধবদের শেয়ার করুন যাতে চিন্ময় বাবু  একটু হলে সাহায্য পান আপনাদের এই শেয়ারের মাধ্যমে আপনাদের মহৎ কাজের মাধ্যমে।


ফোন নম্বর- 9331713120(চিন্ময়)




No comments:

Post a Comment